রাজা ও তার তিন কন্যা- আমার বাংলা বই ৩য় শ্রেণী

গল্পটি পড়ে জানতে পারব

  • রূপকথার গল্প সম্পর্কে
  • খাবারে নুনের গুরুত্ব সম্পর্কে
  • বাবার প্রতি সন্তানের ভালোবাসার কথা
  • সত্যিকারের ভালোবাসার পরিচয়

গল্পটির মূলভাব জেনে নিই
রূপকথার এই গল্পটিতে পিতা ও কন্যার মধ্যে ভালোবাসার কথা বলা হয়েছে। এক রাজা তাঁর তিন কন্যার কাছে জানতে চাইলেন কে তাঁকে কী রকম ভালোবাসে। বড় কন্যা বলল, চিনির মতো। আর মেঝো কন্যা বলল, মিষ্টির মতো ভালোবাসে। ছোট কন্যা বলল, সে রাজাকে নুনের মতো ভালোবাসে। রাজা ভাবলেন ছোট কন্যা বুঝি তাঁকে ভালোবাসে না। তাই তাকে দেওয়া হলো বনবাসের শাস্তি। একসময় নিজের বুদ্ধিমত্তা দিয়ে সে রাজাকে নুনের গুরুত্ব বুঝিয়ে দিল। রাজা বুঝতে পারলেন যে, তাঁর প্রতি ছোট কন্যার ভালোবাসা ছিল সত্যিকারের ভালোবাসা। নিজের ভুল বুঝতে পেরে রাজা ছোট কন্যাকে রাজ্যে ফিরিয়ে আনলেন।

বানানগুলো লক্ষ করি
রানি, কন্যা, অরণ্য, মিষ্টি, সেনাপতি, ময়ূর, বরকন্দাজ, উজির, ক্ষুধার্ত, ব্যবস্থা, বিস্বাদ, পরি।

অনুশীলনীর প্রশ্ন ও উত্তর

১. শব্দগুলো পাঠ থেকে খুঁজে বের করি। অর্থ বলি।
জবাব, হাসির রেখা, অস্থির, হুকুম, বনবাসে,
অরণ্য, জনপ্রাণী, খেয়াল, উজির, নাজির,
পাইক, বরকন্দাজ, জিরিয়ে, বেজায়, বিস্বাদ।
উত্তর :
জবাব = উত্তর।
হাসির রেখা = হাসির চি‎হ্ন।
অস্থির = চঞ্চল।
হুকুম = আদেশ।
বনবাসে = বনে বাস করার জন্য পাঠানো। এক ধরনের শাস্তি।
অরণ্য = গাছপালায় ভরা বন জঙ্গল।
জনপ্রাণী = মানুষ ও অন্যান্য প্রাণী।
খেয়াল = ইচ্ছে।
উজির = মন্ত্রী।
নাজির = রাজার কর্মচারী।
পাইক = লাঠিয়াল, পেয়াদা।
বরকন্দাজ = যে সেপাইয়ের সঙ্গে বন্দুক থাকে।
জিরিয়ে = বিশ্রাম করে।
বেজায় = খুব বেশি।
বিস্বাদ = কোনো স্বাদ নেই।

২. ঘরের ভিতরের শব্দগুলো খালি জায়গায় বসিয়ে বাক্য তৈরি করি।

হুকুম, অস্থির, বেজায়, জনপ্রাণী,
বরকন্দাজরা, বিস্বাদ, বনবাসে।
উত্তর :
ক) বিপদে অস্থির হওয়া ভালো নয়।
খ) বাবা কাজটা করতে হুকুম দিলেন।
গ) এ বছর বেজায় শীত পড়েছে।
ঘ) চাঁদে কোনো জনপ্রাণী নেই।
ঙ) এ খাবার খেতে একেবারে বিস্বাদ।
চ) রাজা মেয়েকে বনবাসে পাঠালেন।
ছ) বরকন্দাজরা জমিদার বাড়ি পাহারা দিত।

৩. যুক্তবর্ণগুলো চিনে নিই। যুক্তবর্ণ দিয়ে তৈরি করা নতুন শব্দ পড়ি।
কন্যা (য-ফলা) = বন্যা, বন্য
বরকন্দাজ = ছন্দ, খন্দ
প্রাণী (র-ফলা) – প্রথম, প্রাণ
ক্ষুধার্ত = ক্ষমা, ক্ষণ
রান্না = কান্না, পান্না

৪. শূন্যস্থান পূরণ করি।
ক) বকুল বলল, আমি তোমাকে _______ মতো ভালোবাসি।
খ) রাজা একটু ________ হাসলেন।
গ) পারুলকে পাঠানো হলো _________।
ঘ) পারুল ফিরে আসায় রাজ্যে সবার মুখে ________ ফুটল।
উত্তর : ক) মিষ্টির; খ) মুচকি; গ) বনবাসে; ঘ) হাসি।

৫. ঠিক উত্তরটি বাছাই করে বলি ও লিখি।

ক) রাজাকে কে কীরকম ভালোবাসে? সে প্রশ্নের উত্তরে প্রথম কন্যা কী বলল?
১. আমি তোমাকে নুনের মতো ভালোবাসি
২. আমি তোমাকে মিষ্টির মতো ভালোবাসি
৩. আমি তোমাকে চিনির মতো ভালোবাসি
৪. আমি তোমাকে গুড়ের মতো ভালোবাসি

খ) রাজার ছোট মেয়েকে বনের মধ্যে কারা বাড়ি বানিয়ে দিল?
১. রাজার লোকেরা ২. বনের পরিরা
৩. বনের পশুরা ৪. বনের পাখিরা

গ) আমাকে চিনতে পেরেছেন? রাজাকে এ প্রশ্ন কে করল?
১. শিমুল ২. বকুল
৩. পারুল ৪. রানি

ঘ) রাজা খুব খুশি হলেন কেন?
১. সাজানো খাবার দেখে ২. ছোট মেয়েকে দেখে
৩. শিকার করতে এসে ৪. নানা ফলমূল খেয়ে
উত্তর : ক) ৩. আমি তোমাকে চিনির মতো ভালোবাসি; খ) ২. বনের পরিরা; গ) ৩. পারুল; ঘ) ১. সাজানো খাবার দেখে।

৬. মুখে মুখে উত্তর বলি।

ক) শিমুল বকুল পারুল -এদের পরিচয় কী?
উত্তর : শিমুল বকুল পারুল তিন বোন। তারা রাজার তিন কন্যা।

খ) মেয়েদের কাছে রাজার প্রশ্নটা কী ছিল?
উত্তর : মেয়েদের কাছে রাজা একটি সহজ প্রশ্ন করেছিলেন। প্রশ্নটা ছিলÑ কে তাঁকে কী রকম ভালোবাসে।

গ) শিমুল ও বকুলের উত্তর শুনে রাজার কেমন লাগল?
উত্তর : শিমুল ও বকুলের উত্তর শুনে রাজা খুশি হলেন। বড় কন্যা শিমুলের উত্তর শুনে তিনি মুচকি হাসলেন। মেঝো কন্যা বকুলের উত্তরেও তাঁর মুখে দেখা দিল হাসির রেখা।

ঘ) তোমাকে আমি নুনের মতো ভালোবাসি। এ কথা কে বলেছিল?
উত্তর : তোমাকে আমি নুনের মতো ভালোবাসি Ñএ কথা বলেছিল রাজার ছোট কন্যা পারুল।

ঙ) রাজা ছোট কন্যাকে কী করলেন?
উত্তর : ছোট কন্যা পারুলকে রাজা বনবাসের শাস্তি দিলেন। পারুলকে গভীর জঙ্গলে ফেলে দিয়ে আসার নির্দেশ দিলেন তিনি।

চ) বনে রাজার মেয়েকে কারা ফলমূল এনে দিল?
উত্তর : বনের হরিণ, খরগোশ ও ময়ূর রাজার মেয়ে পারুলের দুঃখে দুঃখী হলো। তারা রাজার মেয়েকে নানা ফলমূল এনে দিল।

ছ) খাবার মুখে দিয়ে রাজা বিরক্ত হলেন কেন?
উত্তর : রাজাকে যে খাবারগুলো দেওয়া হয়েছিল তার কোনোটাতেই নুন ছিল না। ফলে খাবারগুলো রাজার মুখে অত্যন্ত বিস্বাদ লেগেছিল। যে কারণে খাবার মুখে দিয়ে রাজা বিরক্ত হলেন।

জ) তিনি কীভাবে নিজের ভুল বুঝতে পারলেন?
উত্তর : রাজাকে নুনের মতো ভালোবাসে বলায় ছোট কন্যা পারুলকে বনবাসের শাস্তি দেন রাজা। কিন্তু পরবর্তীতে সে রাজাকে কৌশলে নুনের প্রয়োজনীয়তা বুঝিয়ে দেয়। তখন রাজা বুঝতে পারেন যে তাঁর প্রতি পারুলের ভালোবাসা খাঁটি ছিল। এভাবেই রাজা তাঁর ভুল বুঝতে পারলেন।

ঝ) রাজার রাজ্যে আবার সুখ এলো কেন?
উত্তর : পারুল রাজ্যে ফিরে আসায় সবার মুখে হাসি ফুটল। রাজার রাজ্যে আবার সুখ ফিরে এলো।

৭. উত্তরগুলো লিখি।

ক) কার উত্তর শুনে রাজার মুখ কালো হয়ে গেল?
উত্তর : ছোট কন্যা পারুলের উত্তর শুনে রাজার মুখ কালো হয়ে গেল।

খ) বনবাস বলতে কী বোঝায়?
উত্তর : লোকালয় ছেড়ে বনে বসবাস করতে পাঠানোকে বলে বনবাস। বনবাস এক ধরনের শাস্তি।

গ) পারুলের সঙ্গে দেখা করতে কারা এলো?
উত্তর : পারুলের সাথে দেখা করতে এলো বনের নানা পশুপাখি। তাদের মধ্যে ছিল হরিণ, খরগোশ ও ময়ূর।

ঘ) পারুল রাজ্যে ফিরে আসায় কারা খুশি হলো?
উত্তর : পারুল রাজ্যে ফিরে আসায় রাজ্যের সবাই খুশি হলো।

ঙ) কী না দেওয়ায় খাবার বিস্বাদ হয়েছিল?
উত্তর : নুন না দেওয়ায় খাবার বিস্বাদ হয়েছিল।

চ) পারুল রান্নার সময় কোনো কিছুতে নুন দিল না কেন?
উত্তর : রাজাকে নুনের গুরুত্ব বুঝিয়ে দিতেই পারুল রান্নার সময় কোনো কিছুতে নুন দিল না।

ছ) রাজা মেয়েকে বুকে জড়িয়ে ধরলেন কেন?
উত্তর : পারুলের বুদ্ধিমত্তায় রাজা নুনের গুরুত্ব বুঝতে পারলেন। সেই সঙ্গে বুঝলেন যে পারুলকে বনবাসে পাঠিয়ে তিনি ভুল করেছিলেন। আদরের মেয়েকে ফিরে পেয়ে ও নিজের ভুল বুঝতে পেরে রাজা মেয়েকে বুকে জড়িয়ে ধরলেন।

৮. কথাগুলোর উত্তর জেনে নিই।
ক) উজির শব্দের বদলে আমরা এখন কোন শব্দ ব্যবহার করি?
উত্তরঃ মন্ত্রী

খ) পাইক শব্দের বদলে আমরা এখন কী বলি?
উত্তরঃসৈন্য

গ) হুকুম শব্দের মতো একই রকম আর কী কী শব্দ আছে?
উত্তরঃআদেশ, নির্দেশ

৯. গল্পটি মুখে মুখে বলি।
উত্তর : পাঠ্য বই থেকে গল্পটি পড়ে নাও। এবার বই না দেখে নিজের মতো করে গল্পটি বল।

অতিরিক্ত প্রশ্ন ও উত্তর

⦾ সঠিক উত্তরটি লেখ ।

১. রাজার কয়টি মেয়ে ছিল?
ক ১টি খ ২টি
গ ৩টি ঘ ৪টি

২. রাজার বড় কন্যার নাম কী? ছ
ক পারুল খ শিমুল
গ বকুল ঘ পরি

৩. মেঝো মেয়ে বাবাকে কিসের মতো ভালোবাসে?
ক চিনির মতো খ মিষ্টির মতো
গ গুড়ের মতো ঘ নুনের মতো

৪. বকুলের কথা শুনে রাজা?
ক শব্দ করে হাসলেন খ মুখ কালো করলেন
গ মুচকি হাসলেন ঘ বকা দিলেন

৫. কার কথা শুনে রাজা অস্থির হয়ে উঠলেন?
ক পারুলের খ রানির
গ বকুলের ঘ সেনাপতির

৬. পরিরা রাজার মেয়ের জন্য কী করল?
ক ফলমূল এনে দিল খ বাড়ি তৈরি করল
গ সোনা-দানা এনে দিল ঘ বনের প্রাণীদের খবর দিল

৭. বনের পশুপাখিরা রাজার মেয়েকে কী এনে দিল?
গ অনেক রকম মিষ্টি ঘ পোলাও মাংস

৮. কুটিরে কে বাস করত?
ক পারুল খ রানি
গ পরি ঘ বকুল

৯. এত সুন্দর রান্না রাজা খেতে পারলেন না কেন?
ক ক্ষিধে ছিল না বলে
খ পারুলের ওপর রাগ করেছিলেন বলে
গ খাবারে নুন ছিল না বলে
ঘ খাবার গরম ছিল বলে

⦾ নিচের শব্দগুলোর অর্থ লেখ।
মুচকি হাসি, কুটির, বিরক্ত।
উত্তর : শব্দ অর্থ
মুচকি হাসি = সামান্য হাসি।
কুটির = ছোট কুঁড়েঘর।
বিরক্ত = অসন্তুষ্ট।

⦾ নিচের শব্দগুলো দিয়ে বাক্য রচনা কর।
শান্তি, সহজ, গভীর, ক্ষুধার্ত।
উত্তর :
শব্দ বাক্য
শান্তি = মিলেমিশে থাকলে শান্তিতে থাকা যায়।
সহজ = বারবার চেষ্টায় কঠিন কাজও সহজ হয়ে যায়।
গভীর = গভীর নলকূপের পানি বিশুদ্ধ হয়।
ক্ষুধার্ত = ক্ষুধার্ত শিশুটিকে খেতে দাও।

⦾নিচের যুক্তবর্ণগুলো কোন কোন বর্ণ নিয়ে গঠিত ভেঙে দেখাও এবং প্রতিটি যুক্তবর্ণ দিয়ে একটি করে নতুন শব্দ গঠন করে বাক্যে প্রয়োগ দেখাও।
ঙ্গ, ষ্ট, ন্দ, স্ব, ক্ত।
উত্তর :
ঙ্গ = ঙ + গ = মঙ্গল = মিলেমিশে থাকলেই সবার মঙ্গল হয়।
ষ্ট = ষ + ট = কষ্ট = লোকটি শীতে কষ্ট পাচ্ছে।
ন্দ = ন + দ = মন্দ = মিথ্যা বলা মন্দ কাজ।
স্ব = স + ব-ফলা ( ^ ) = স্বাধীনতা = ২৬ শে মার্চ আমাদের স্বাধীনতা দিবস।
ক্ত = ক + ত = রক্ত = সব মানুষের রক্তই লাল।

⦾ উপযুক্ত শব্দ দিয়ে শূন্যস্থান পূরণ কর।
নুন, জনপ্রাণী, রানি, খাবার, শিকারে, ভুল, রাজার, কন্যাদের, পরিরা।
ক) রাজার ছিল এক ________।
খ) রাজা তাঁর ________ জিজ্ঞেস করলেন, এক সহজ প্রশ্ন।
গ) গভীর অরণ্য। ______ নেই।
ঘ) পরিরা এনে দিল মজার মজার ________।
ঙ) রাজার খেয়াল হলো ________ যাবেন।
চ) একটুও ______ নেই কোনো খাবারে।
ছ) রাজা নিজের _____ বুঝতে পারলেন।
উত্তর : ক) রানি; খ) কন্যাদের; গ) জনপ্রাণী; ঘ) খাবার; ঙ) শিকারে; চ) নুন; ছ) ভুল।

⦾ ডান পাশের বাক্যাংশের সাথে বাম পাশের বাক্যাংশের মিল কর।
রানিও হলেন ———- তবে বেজায় বিষাদ।
পারুলের মনে ———– পরিরা।
বকুল হলো ———– রাজার মেঝো কন্যা।
খাবারে ছিল না ———— নুন।
বাগান বানাল —— অনেক দুঃখ।
সুন্দর রান্না ——- অস্থির।
অবাক।
উত্তর : রানিও হলেন = অবাক।
পারুলের মনে = অনেক দুঃখ।
বকুল হলো = রাজার মেঝো কন্যা।
খাবারে ছিল না = নুন।
বাগান বানাল = পরিরা।
সুন্দর রান্না = তবে বেজায় বিস্বাদ।

⦾ নিচের শব্দগুলোর বিপরীত শব্দ লেখ।

শান্তি, সুখ, সহজ, মুচকি হাসি, অস্থির, গভীর, দূরে, ইচ্ছা, খুশি, বিস্বাদ, বিরক্ত, প্রশ্ন, ভুল, হাসি।
উত্তর :
শব্দ = বিপরীত শব্দ
শান্তি = অশান্তি
ইচ্ছা = অনিচ্ছা
সুখ = দুঃখ
খুশি = অখুশি
সহজ = কঠিন
বিস্বাদ = স্বাদ
মুচকি হাসি = অট্ট হাসি
বিরক্ত = অনুরক্ত
অস্থির = সুস্থির
প্রশ্ন = উত্তর
গভীর = অগভীর
ভুল = সঠিক
দূরে = কাছে
হাসি = কান্না

⦾ নিচের বাক্যগুলোতে দাগ দেওয়া শব্দগুলোর বানান শুদ্ধ করে বাক্যগুলো আবার লেখ।
ক) রাজার ছিল এক রাণী
খ) পারুলকে গভীর জঙলে ফেলে দিয়ে এসো।
গ) গভীর অরন্ন, জনপ্রাণী নেই।
ঘ) রাজা খুব বিরকত হলেন।
ঙ) রাজা খুব ক্ষুদার্ত
উত্তর :
ক) রাজার ছিল এক রানি
খ) পারুলকে গভীর জঙ্গলে ফেলে দিয়ে এসো।
গ) গভীর অরণ্য, জনপ্রাণী নেই।
ঘ) রাজা খুব বিরক্ত হলেন।
ঙ) রাজা খুব ক্ষুধার্ত

⦾ নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর লেখ।
ক) গল্প করার সময় রাজার সাথে কে কে ছিল?
উত্তর : গল্প করার সময় রাজার সাথে ছিল রানি এবং রাজার তিন কন্যা শিমুল, বকুল ও পারুল।

খ) কে রাজাকে চিনির মতো ভালোবাসে?
উত্তর : রাজার বড় কন্যা শিমুল রাজাকে চিনির মতো ভালোবাসে।

গ) পরিরা পারুলের জন্য কী কী করল?
উত্তর : পরিরা পারুলের দুঃখে সমব্যথী হলো। তারা পারুলের জন্য সুন্দর একটা বাড়ি তৈরি করল। নানা রকম ফুলের চারা এনে একটা বাগান তৈরি করে দিল। আর এনে দিল মজার মজার খাবার।

ঘ) পারুলের মনে অনেক দুঃখ ছিল কেন?
উত্তর : গভীর অরণ্যে পারুল একা একা দিন কাটাত। মা, বাবা ও বোনেরা অর্থাৎ আপনজনেরা কাছে না থাকায় পারুলের মনে ছিল অনেক দুঃখ।

ঙ) রাজা শিকারে যাওয়ার সময় কাদের সাথে নিলেন?
উত্তর : রাজা শিকারে যাওয়ার সময় উজির, নাজির, পাইক ও বরকন্দাজকে সাথে নিলেন।

চ) রাজার লোকেরা কুটিরের সুন্দরী কন্যাকে কী বলল?
উত্তর : রাজার লোকেরা কুটিরের সুন্দরী কন্যাকে বলল যে, রাজা খুব ক্ষুধার্ত। তিনি খাওয়ার ইচ্ছা জানিয়েছেন।

ছ) পারুল রাজার জন্য কী কী রান্না করল?
উত্তর : পারুল রাজার জন্য কোরমা, পোলাও, মাংস আর নানা রকমের তরকারি রান্না করল।

জ) খাবারে নুন দেওয়া জরুরি কেন?
উত্তর : নুন না দিলে খাবারে কোনো স্বাদ হয় না। তাই খাবারে পরিমাণমতো নুন দেওয়া জরুরি।

ঝ) রাজা পরে কীভাবে সব খাবার মজা করে খেতে পারলেন?
উত্তর : প্রথম অবস্থায় খাবারে নুন না থাকায় রাজার মুখে সব খাবার বিস্বাদ লাগে। রাজা তখন কোনো খাবার খেতে পারলেন না। পরবর্তীতে সব খাবার নুন দিয়ে রান্না করা হলে রাজা মজা করে খেলেন।

ঞ) রাজা বনে গিয়েছিলেন কী জন্য?
উত্তর : একদিন রাজার শিকারে যাওয়ার শখ হলো। শিকার করার জন্যই রাজা বনে গিয়েছিলেন।

ট) রাজার খাবারের ব্যবস্থা করল কে?
উত্তর : রাজার খাবারের ব্যবস্থা করল কুটিরবাসী এক সুন্দরী কন্যা। আসলে সে ছিল রাজারই ছোট কন্যা পারুল।

ঠ) রাজা কী হুকুম দিলেন?
উত্তর : রাজা হুকুম দিলেনÑ ‘ছোট কন্যা পারুলকে গভীর জঙ্গলে ফেলে দিয়ে এসো। বনবাসে দাও তাকে।’

প্রাথমিক সমাপনী নমুনা প্রশ্ন ও উত্তর

পাঠ্য বইভিত্তিক

চের অনুচ্ছেদটি পড়ে ১, ২, ৩ ও ৪ নম্বর প্রশ্নের উত্তর লেখ।
রাজার ছোট কন্যা পারুল বলল, বাবা, আমি তোমাকে নুনের মতো ভালোবাসি। শুনে রাজা অস্থির হলেন, মুখ হলো কালো। রানিও অবাক হলেন। রাজার হুকুমে পারুলকে জনপ্রাণীহীন গভীর অরণ্যে বনবাসে পাঠানো হলো। পরিরা পারুলের দুঃখ বুঝতে পেরে তাকে সুন্দর একটি ঘর বানিয়ে দিল। একদিন রাজা জঙ্গলে এলেন শিকার করতে। রাজার লোকেরা পারুলকে বলল যে রাজা খুব ক্ষুধার্ত। পারুল রান্না করল অনেক খাবার। কিন্তু কোনো খাবারেই নুন দিল না। রাজা যেটাই মুখে দেন সেটাই বেজায় বিস্বাদ লাগে। কিছুই খেতে তাঁর ভালো লাগল না। পারুল তখন এসে বলল, বাবা আমাকে চিনতে পেরেছেন? আমিই বলেছিলাম, আপনাকে নুনের মতো ভালোবাসি। রাজা নিজের ভুল বুঝতে পেরে পারুলকে রাজ্যে ফিরিয়ে আনলেন।

১. সঠিক উত্তরটি উত্তরপত্রে লেখ।
১) রাজার ছোট কন্যার নাম কী?
(ক) পরি (খ) পারভিন
(গ) পারুল (ঘ) পরমা
২) ‘সুন্দর’ শব্দের বিপরীত শব্দ কোনটি?
(ক) কালো (খ) কুৎসিত
(গ) অপূর্ব (ঘ) নজরকাড়া
৩) রানি অবাক হলেন কেন?
(ক) পারুলের কথা শুনে
(খ) পারুলকে বনবাসে পাঠানোয়
(গ) খাবারে নুন না থাকায়
(ঘ) পারুলকে রাজ্যে ফিরে আসতে দেখে
৪) অনুচ্ছেদটি পড়ে বলা যায় 
(ক) নুন ছাড়াও খাবার সুস্বাদু হয়
(খ) নুন না দিলে খাবারে স্বাদ হয় না
(গ) নুন দিলে খাবার বিস্বাদ হয়
(ঘ) খাবারে নুন দেওয়া বা না দেওয়ায় কিছু আসে যায় না
৫) রাজার প্রতি ছোট কন্যার ভালোবাসা 
(ক) মিথ্যা ছিল (খ) ছিল না
(গ) সত্যি ছিল (ঘ) প্রমাণিত হয়নি
উত্তর : ১) (গ) পারুল; ২) (খ) কুৎসিত; ৩) (ক) পারুলের কথা শুনে; ৪) (খ) নুন না দিলে খাবারে স্বাদ হয় না; ৫) (গ) সত্যি ছিল।

২. নিচের শব্দগুলোর অর্থ লেখ।
নুন, বনবাস, অরণ্য, জনপ্রাণী, বিস্বাদ।
উত্তর : শব্দ অর্থ
নুন = লবণ।
বনবাস = বনে বাস করতে পাঠানোর শাস্তি।
অরণ্য = গাছপালায় ভরা বন-জঙ্গল।
জনপ্রাণী= মানুষ ও অন্যান্য প্রাণী।
বিস্বাদ = কোনো স্বাদ নেই।

৩. নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর লেখ।
ক) পরিরা পারুলের দুঃখ বুঝতে পেরে কী করল?
উত্তর : পরিরা পারুলের দুঃখ বুঝতে পেরে তাকে থাকার জন্য একটি বাড়ি বানিয়ে দিল।

খ) রাজার কিছুই খেতে ভালো লাগল না কেন?
উত্তর : খাবারে নুন না থাকায় খাবার খেতে খুব বিস্বাদ হয়েছিল। তাই রাজার কিছুই খেতে ভালো লাগল না।

গ) খাবারে নুন না থাকায় রাজা কী বুঝতে পারলেন?
উত্তর : খাবারে নুন না থাকায় রাজা বুঝতে পারলেন যে নুন না থাকলে কোনো খাবারই সুস্বাদু হয় না। সেই সাথে তিনি বুঝলেন যে ছোট কন্যা পারুল তাঁকে সত্যিই অনেক ভালোবাসে।

৪. অনুচ্ছেদটির মূলভাব লেখ।
উত্তর : ছোট কন্যা পারুল রাজাকে নুনের মতো ভালোবাসে। এ কথা শুনে রাজা ছোট কন্যাকে পাঠালেন বনবাসে। একদিন শিকার করতে গিয়ে রাজা পারুলের রান্না করা বিস্বাদ খাবার খেয়ে নুনের প্রয়োজনীয়তা বুঝতে পারলেন। নিজের ভুল বুঝতে পেরে ছোট কন্যাকে তিনি রাজ্যে ফিরিয়ে আনলেন।

পাঠ্য বই বহির্ভূত

এ অংশে পাঠ্য বই বহির্ভূত অনুচ্ছেদ/কবিতাংশ দেওয়া থাকবে। প্রদত্ত অনুচ্ছেদ/কবিতাংশ পড়ে ৩ ধরনের প্রশ্নের উত্তর করতে হবে। এখানে থাকবে- ৫. বহুনির্বাচনি প্রশ্ন, ৬. শূন্যস্থান পূরণ ও ৭. প্রশ্নের উত্তর লিখন। প্রতিটি প্রশ্নের উত্তর করতে হবে।
পাঠ্য বই বহির্ভূত অনুচ্ছেদ/কবিতাংশ পরীক্ষায় কমন পড়বে না। তাই এটি এখানে দেওয়া হলো না। তবে পরীক্ষার প্রশ্নের পূর্ণাঙ্গ নমুনা (ঋড়ৎসধঃ) বোঝার সুবিধার্থে বইয়ের প্রথম দুটি অধ্যায়ে পাঠ্য বই বহির্ভূত অংশটি সংযোজন করা হয়েছে।

৮. নিচের যুক্তবর্ণগুলো কোন কোন বর্ণ নিয়ে গঠিত ভেঙে দেখাও এবং প্রতিটি যুক্তবর্ণ দিয়ে একটি করে নতুন শব্দ গঠন করে বাক্যে প্রয়োগ দেখাও।
ন্ত, ল্প, জ্ঞ, শ্ন, স্থ।
উত্তর :
ন্ত = ন + ত  শান্ত
 ছেলেটি খুব শান্ত।=ল্প = ল + প  গল্প = আমার গল্প শুনতে ভালো লাগে।
জ্ঞ = জ + ঞ = অজ্ঞ = লোকটি পড়াশোনায় অজ্ঞ।
শ্ন = শ + ন = প্রশ্ন = প্রশ্নটির উত্তর দাও।
স্থ = স + থ = সুস্থ = সে সুস্থ হয়ে উঠেছে।

৯. সঠিক স্থানে বিরামচিহ্ন বসিয়ে অনুচ্ছেদটি আবার লেখ।
এক ছিল রাজা রাজার ছিল এক রানি আর ছিল তিন কন্যা শিমুল বকুল ও পারুল
উত্তর : এক ছিল রাজা। রাজার ছিল এক রানি। আর ছিল তিন কন্যা। শিমুল, বকুল ও পারুল।

১০. এককথায় প্রকাশ কর।
ক) গাছপালায় ভরা বনজঙ্গল;
খ) যে জিনিসে কোনো স্বাদ নেই;
গ) যে সেপাইয়ের সাথে বন্দুক থাকে;
ঘ) খুব বেশি;
ঙ) মানুষ ও অন্যান্য প্রাণী।
উত্তর : ক) অরণ্য; খ) বিস্বাদ; গ) বরকন্দাজ; ঘ) বেজায়; ঙ) জনপ্রাণী।

১১. নিচের শব্দগুলোর সমার্থক শব্দ লেখ।
রাজা, কন্যা, অরণ্য, ইচ্ছা, হুকুম।
উত্তর : শব্দ সমার্থক শব্দ
রাজা = নৃপতি, দেশশাসক।
কন্যা = মেয়ে, জায়া।
অরণ্য = জঙ্গল, বন।
ইচ্ছা = সাধ, আগ্রহ।
হুকুম = আদেশ, নির্দেশ।

১২. নিচের প্রশ্নগুলোর উত্তর দাও।
(গদ্যের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়)

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published.